ঢাকাবৃহস্পতিবার , ২৭ জানুয়ারি ২০২২
  1. অর্থনীতি
  2. আন্তর্জাতিক
  3. কৃষি-কৃষক
  4. খেলার খবর
  5. চাকরী
  6. চিকিৎসা-করোনা
  7. জাতীয়
  8. দেশ-জুড়ে
  9. ধর্ম-কর্ম
  10. প্রযুক্তি খবর
  11. বিনোদন
  12. বিস্ময়কর
  13. রাজনীতি
  14. লাইফস্টাইল
  15. শিক্ষা

কোকা-কোলা বাংলাদেশের সাথে এই প্রথমবারের মতো একত্রে চুক্তিবদ্ধ হলেন তাহসান ও অর্ণব

সাজিদ হাসান সোহাগ
জানুয়ারি ২৭, ২০২২ ১১:৪১ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

বিশিষ্ট সঙ্গীতশিল্পী ও সুরকার তাহসান রহমান খান এবং শায়ান চৌধুরী অর্ণব যথাক্রমে কোকের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ও সঙ্গীত প্রযোজক হিসেবে যুক্ত হয়েছেন। কোকা-কোলা বাংলাদেশ তাদের চুক্তি স্বাক্ষরের বিষয়টি ঘোষণা করেছে। প্রথমবারের মতো এই দুই সুপারস্টার বিশ্বখ্যাত ব্র্যান্ড কোকা-কোলার জন্য একসাথে কাজ করবেন।
কোকা-কোলার নতুন ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর তাহসান রহমান খান বলেন, “কোকা-কোলা সবসময়ই আমার জীবনের অংশ ছিল। তাই ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে এই কোম্পানিতে যুক্ত হওয়াটা আমার কাছে যৌক্তিক বলে মনে হয়েছে। সামনের দিনগুলোতে যে কাজগুলো আমরা করতে যাচ্ছি, তা নিয়ে আমি রোমাঞ্চিত। আমি আশা করছি, সবাই আমাদের কাজ পছন্দ করবেন।”
তাহসান রহমান খান কোকা-কোলা বাংলাদেশের ফ্ল্যাগশিপ পণ্য কোকা-কোলার নতুন মুখ হবেন। অপরদিকে, শায়ান চৌধুরী অর্ণব সঙ্গীত প্রযোজক হিসেবে কোকা-কোলার বিভিন্ন সঙ্গীত প্রকল্পে কাজ করবেন। তারা দু’জন ২০২২ সালে বেশ কয়েকটি প্রকল্পে ব্যাপকভাবে কোকা-কোলার সাথে যুক্ত থাকবেন।
শায়ান চৌধুরী অর্ণব, সঙ্গীত প্রযোজক বলেন, “একজন শিল্পী হিসেবে কোকা-কোলার আসন্ন বিভিন্ন সঙ্গীত প্রকল্পের অংশ হতে পারাটা চমৎকার ব্যাপার। কিছু দুর্দান্ত প্রকল্প নিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গীতে কোকা-কোলা তার যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে। এসকল প্রকল্পের সঙ্গীত প্রযোজক হিসেবে কাজ করার সুযোগ পেয়ে আমি অত্যন্ত খুশি। আমাদের কাজগুলো সবার সাথে ভাগ করে নেওয়ার জন্য আমি অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছি।”
কোকা-কোলা বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তা জি তুং বলেন, “দেশের বিখ্যাত দুই শিল্পীর সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করাটা আমাদের কোম্পানির জন্য অত্যন্ত গর্বের বিষয়। এই দুই শিল্পীর ব্যক্তিত্বে কোকা-কোলার ভাবনা ফুটে উঠে । নিঃসন্দেহে এই পার্টনারশিপের সাফল্য নিয়ে আমরা অত্যন্ত আশাবাদী।”
দারুণ সব অনুষ্ঠান ও ব্র্যান্ডের মাধ্যমে ভোক্তাদের জীবনে চমৎকার সব মুহূর্ত নিয়ে আসার দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে কোকা-কোলার। বাংলাদেশে এর ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে রয়েছে কোকা-কোলা, ডায়েট কোক, কোকা-কোলা জিরো সুগার, স্প্রাইট, স্প্রাইট জিরো, ফ্যান্টা, কিনলে ওয়াটার, কিনলে সোডা এবং থামস আপ।

 

 

কোকা-কোলা
বিগত পাঁচ দশকের বেশি সময় ধরে পৃথিবীকে চাঙ্গা করা ও সমাজে পরিবর্তন আনার উদ্দেশ্য নিয়ে কাজ করছে কোকা-কোলা বাংলাদেশ। আমাদের ব্র্যান্ডগুলোর মধ্যে আছে কোকা-কোলা, ডায়েট কোক, স্প্রাইট, ফ্যান্টা, কিনলে ওয়াটার, কিনলে সোডা, কোকা-কোলা জিরো, স্প্রাইট জিরো ও থামস-আপ কারেন্ট। কোম্পানি-মালিকানাধীন বটলিং প্রতিষ্ঠান ইন্টারন্যাশনাল বেভারেজেস প্রাইভেট লিমিটেড (আইবিপিএল) এবং দ্য কোকা-কোলা কোম্পানির (টিসিসিসি) স্বাধীন/স্বতন্ত্র, অনুমোদিত ফ্র্যাঞ্চাইজি বটলার আবদুল মোনেম লিমিটেড (এএমএল) নিয়ে কোকা-কোলা বাংলাদেশ সিস্টেম গঠিত। এই সিস্টেম বর্তমানে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে যথাক্রমে ৮০০ ও ২১,০০০ এর বেশি মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করছে। সারা দেশের মানুষদের জন্য পানি, স্যানিটেশন, হাইজিন ও বৃষ্টির পানি সংরক্ষণের মাধ্যমে মানুষের জীবনে ইতিবাচক প্রভাব রাখা আমাদের লক্ষ্য। আমাদের ফ্ল্যাগশিপ প্রোগ্রাম “উইমেন বিজনেস সেন্টার” এর লক্ষ্য নারীদের অর্থনৈতিক ক্ষমতায়ন। ইতোমধ্যে এই প্রকল্পের মাধ্যমে ২০২০ সালের মধ্যে ১ লক্ষ নারীর ক্ষমতায়ন করা হয়েছে। “ওয়ার্ল্ড উইদাউট ওয়েস্ট” গড়ার বৈশ্বিক প্রতিজ্ঞার অংশ হিসেবে গত ১০ বছর ধরে বাংলাদেশে আন্তর্জাতিক কোস্টাল ক্লিনআপ প্রকল্পের গর্বিত অংশীদার কোকা-কোলা। এছাড়া, বারিন্দ অঞ্চলে পানির অপচয় রোধে আইডব্লিউইটি প্রকল্পে মিলিতভাবে কাজ করছে দ্য কোকা-কোলা ফাউন্ডেশন (টিসিসিএফ)। টিসিসিএফ-এর সহায়তায় মহামারি চলাকালীন কমিউনিটিকে সাহায্য করছে কোম্পানিটি। যার মাধ্যমে ইতোমধ্যে ৫০ লক্ষ লোকের জীবনে ইতিবাচক প্রভাব রাখা সম্ভব হয়েছে।
মিডিয়া যোগাযোগ:
ফারাহ শারমিন আওলাদ| কান্ট্রি পাবলিক অ্যাফেয়ারস, কমিউনিকেশনস অ্যান্ড সাসটেইনেবিলিটি হেড | কোকা-কোলা বাংলাদেশ লিমিটেড
ইউশা মোহন| অ্যাকাউন্ট ম্যানেজার| বেঞ্চমার্ক পিআর
ফোন নম্বর: +৮৮০১৬৭৭৩৫৪৪৮৬
ইমেইল: yousha@benchmarkpr.com.bd

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।