সোমবার, আগস্ট ২, ২০২১
Homeদেশজুড়েনওগাঁয় কন্যা সন্তাকে রেখে শরীরে আগুন লাগিয়ে মায়ের আত্মহত্যা

নওগাঁয় কন্যা সন্তাকে রেখে শরীরে আগুন লাগিয়ে মায়ের আত্মহত্যা

নওগাঁর নিয়ামতপুরে নিজের শরীরে আগুন লাগিয়ে তামান্না(২২) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছে বলে জানা গেছে। বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) সন্ধ্যে ৭টায় অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় মারা যান গৃহবধূ তামান্না। তামান্না উপজেলার হাজিনগর ইউনিয়নের মাকলাহাট বাসিন্দাপাড়ার ইসমাইলের স্ত্রী।আড়াই মাসের ইসরাত জাহান তাসফিয়া নামে ওই দম্পতির একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

শিবপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) চিত্তরঞ্জন জানান, তামান্নার শরীরের ৭৫% শতাংশ পুড়ে গিয়েছিল। এ ঘটনায় শুক্রবার (১৬ জুলাই)সকাল ১১টায় সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (মান্দা সার্কেল) মতিয়ার রহমান, নিয়ামতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ হুমায়ন কবির ঘটনা স্থান পরিদর্শন করেন।পুলিশ ও পরিবার সুত্রে জানা গেছে, বুধবার (১৪ জুলাই) বিকেল ৫ টার দিকে বাড়ীর দোতলা একটি ঘরে তামান্না দরজা লাগিয়ে গ্যাসলাইট দিয়ে নিজের শরীরে আগুন লাগিয়ে দেয়। তখন স্বামী ইসমাইল বাড়ীর বাইরে গরুকে খাবার দিচ্ছিলেন। ঘর থেকে আগুনের ধোয়া দেখতে পেয়ে পরিবারের অন্যান্য সদস্য স্বামী ইসমাইলকে সংবাদ দিলে সাথে সাথে ছুটে গিয়ে ঘরের দরজা ভেঙ্গে তাকে উদ্ধার করে। ততক্ষনে তামান্নার প্রায় পুরো শরীর পুড়ে গেছে।

নিহতের স্বামী ইসমাইল জানান, সে বাচ্চা হওয়ার পর থেকে মানষিক সমস্যায় ভুগছিল। আমি ও আমার শ্বশুড়/শ্বাশুড়ীরা তাকে বিভিন্ন ডাক্তারের কাছে চিকিৎসা করাচ্ছিলাম। ইতি পূর্বে সে আরো দুবার নিজের শরীরে আগুন লাগানোর চেষ্টা করেছিল।নিহতের বাবা শফিকুল ইসলাম জানান, মেয়ের সংসার ভালই চলছিল। আড়াই মাস আগে সন্তান হওয়ার পর থেকে মেয়ের মাথার সমস্যা সৃষ্টি হয়। মানুষিক সমস্যার কারণেই আমরা আমাদের মেয়েকে হারালাম। আমাদের কোন অভিযোগ নেই।

এ বিষয়ে নিয়ামতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ হুমায়ন কবির বলেন, নিহত গৃহবধুর মরদেহটি ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। মানুষিক সমস্যার কারণেই সে নিজের শরীরে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যা করতে পারে, পরিবারের কারো কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি।#

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments