1. manobatatelevision@gmail.com : Salekin Mia : Salekin Mia Sagor
  2. chuadangatimes24@gmail.com : Manobata Television : Manobata Television
ভারত উপমহাদেশে চিরুনী ও বোতাম শিল্পের জনক ঝিনাইদহের মন্মত নাথ ঘোষ » Manobata Television: Bangla online Tv
ঢাকা আজ-রবিবার,৯ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,২৬শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,রাত ১১:০০,গ্রীষ্মকাল
সর্বশেষ প্রকাশিত
অতিরিক্তি লাভের আশায় গুদামে খারাপ চাল দেওয়ার চেষ্টা করবেন না- খাদ্যমন্ত্রী ঠাকুরগাঁওয়ে বজ্রপাতে একজনের মৃত্যু চুয়াডাঙ্গার ৬৩ শিশুকে ঈদের নতুন পোষাক উপহার দিলেন পুলিশ সুপার জাহিদুল ইসলাম ঈদে নতুন পোশাক পেয়ে স্বর্গীয় হাসি অসহায় শিশুদের করোনা আক্রান্ত তসলিমা নাসরিন চুয়াডাঙ্গার পীরপুরে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার সিদ্বান্তে আইনমন্ত্রণালয়ের ‘না’ দুই ভাগে মুক্তি পাবে পুষ্পা সিনেমাটি নতুন জনপ্রশাসন সচিব আলী আজম, শিল্পে জাকিয়া ভারতে টানা চার দিন ধরে চার লক্ষাধিক করে শনাক্ত `ঈদের পূর্বে গুম হওয়াদের পরিবারের নিকট ফিরিয়ে দিন’ লকডাউনের নামে এভাবে মানুষকে আটকে রাখা ভুল:ডা. জাফরুল্লাহ ঝিনাইদহে সাড়ে ৬ মাস পর স্বস্তির বৃষ্টি ভারত থেকে বিপদজনক বার্তা পাচ্ছে বাংলাদেশ : সেতুমন্ত্রী ঈদে চমক নিয়ে আসছে নীলিমা খালেদা জিয়ার করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ: মির্জা ফখরুল নিজ নিজ অবস্থানে ঈদ উদযাপন করুন: প্রধানমন্ত্রী সেই স্পিডবোট মালিক গ্রেফতার ভিভোর ভি সিরিজই টার্গেট তরুণদের

ভারত উপমহাদেশে চিরুনী ও বোতাম শিল্পের জনক ঝিনাইদহের মন্মত নাথ ঘোষ

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহ-
  • প্রকাশিত সোমবার, ১২ এপ্রিল, ২০২১, ০৬:৫৯: পূর্বাহ্ণ
  • ৪২ বার দেখা

ঝিনাইদহের মানুষের কৃতিত্বগাথা কর্ম সম্পর্কে আমরা কজনই বা জানি। যুগে যুগে এই জেলার মানুষ সমৃদ্ধ করেছে ইতিহাসকে। অথচ ইতিহাসের পাতায় তাদের নাম নেই। কালেভাদ্রে প্রচারণায় উঠে আসে তাদের নাম। তেমনই একটি নাম হচ্ছে মন্মত নাথ ঘোষ। এই মন্মত নাথ ঘোষ ভারতীয় উপমহাদেশে বোতাম ও চিরুনি শিল্প সমৃদ্ধ করেছিলেন। চিরুনি প্রথম তৈরি করেছিলেন মিশরের মানুষ, ঐতিহাসিকভাবে এটাই সত্যি। যতদিন চিরুনি মানুষের হাতে আসেনি, ততদিন জটাধারী মানুষের সংখ্যা বেশি ছিল, সন্দেহ নেই। প্রাচীন মানুষের মাথায় চিরুনির অভাবে পোকা জন্মে রোগ হত। তবে মিশরে চিরুনির আবিস্কার হয়েছিল খ্রিষ্টজন্মের অনেক আগে। ভারত উপ-মহাদেশে সেই চিরুনি এসেছিল খ্রিষ্টজন্মের পাঁচ-সাতশ বছর পরে। কিন্তু সেই চিরুনির সাথে বর্তমান চিরুনির কোন মিল নেই। মোটামুটি ব্যবহারযোগ্য, ভদ্রস্থ, চিরুনি এদেশে এসেছিল ব্রিটিশ শাসনের আগে দিয়ে। সেগুলি ছিল কাঠ, পশুর হাঁড়, মহিষের সিং, হাতির দাঁত, কচ্ছপের খোলা ও পিতল দিয়ে তৈরী। আর সেগুলি ছিল রাজা-উজিরদের ব্যবহারের জন্য। অষ্টাদশ শতাব্দীতে কলকাতা-ঢাকায় পশুর হাঁড় থেকে সামগ্রী তৈরীর কারিগরেরা চিরুনি বানাতো। কিন্তু তখনো চিরুনি শিল্প হিসাবে উঠে আসেনি। ১৮২৪ সালে ব্রিটিশ রসায়নবিদ মিঃ লাইন ইংল্যান্ডে প্রথম রাসায়নিক দিয়ে চিরুনি তৈরী করেন। সেই চিরুনি উনিশ শতকের মাঝামাঝি অবিভক্ত ভারতে আসে। তবে সে সময় জার্মানির গাটাপার্চারের চিরুনি সারা বিশ্বে খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল। উনিশ শতকের শেষের দিকে সেলুলয়েডের চিরুনি জাপানে কুটিরশিল্প হিসাবে ছড়িয়ে পড়ে। তারপরে তা ছড়িয়ে পড়ে চীন ও ইউরোপের দেশগুলিতে। তখনো ভারতীয় উপমহাদেশে চিরুনি শিল্প গড়ে ওঠেনি। ইতিহাসে এমন কোন তথ্য এখনো পাওয়া যায়নি। পশ্চিমবঙ্গের নদীয় জেলার কৃষ্ণনগরের ব্লগার দিপক রায় তার এক লেখায় তুলে ধরেন চিরুনি শিল্পের সাথে যে মানুষটির নাম জড়িয়ে আছে, তিনি হলেন মন্মথ নাথ ঘোষ। ঝিনাইদহ শহরতলী মথুরাপুর গ্রামের মন্মথ নাথ ঘোষ ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলনে অনুপ্রানিত হয়ে কারিগরী বিদ্যা শিখে স্বদেশী কারখানা গড়ার স্বপ্ন নিয়ে ১৯০৬ সালে জাপানে গিয়েছিলেন। সেখানে তিনি ৩ বছর ছিলেন। যাওয়ার আগে তিনি আচার্য প্রফুল্লচন্দ্র রায়ের পরামর্শ নিয়েছিলেন। বহু কষ্টে তিনি সেখানে চিরুনি নির্মানের কৌশল শিখে ১৯০৯ সালে দেশে ফিরে এসে যশোর শহরে ১৯১০ সালের মাঝামাঝিতে প্রথম চিরুনি কারখানা স্থাপন করেন। এই কারখানার সব যন্ত্রাদি জাপান থেকে এনছিলেন তিনি। এই কাজে তাঁকে অর্থ দিয়ে সাহায্য করেছিলেন যশোরের জমিদার প্রমথ ভূষন দেবরায়, কাশিমবাজারের মহারাজা মনীন্দ্রচন্দ্র নন্দা ও বর্ধমানের মহারাজা বিজয়চাঁদ মহতাপ বাহাদুর। কারখানার নাম দেওয়া হয়েছিল, ‘যশোর কম্ব বাটন এন্ড ম্যাট ম্যানুফ্যাকচারিং কোম্পানি লিমিটেড’। ঝিনাইদহের প্রচুর যুবককে এই কাজে তিনি নিয়োগ করেছিলেন। এই চিরুনি সারা বাংলা, সারা দেশে জনপ্রিয়তা পায়। ফলে বিদেশের চিরুনির বিক্রি কমে যায়। মন্মথবাবু কলকাতা, হাওড়াতে পরিচিত বন্ধুদের চিরুনি কারখানা গড়ায় উৎসাহ দিতে থাকেন। কিন্তু তার এই স্বদেশী কাজকে সহ্য করতে পারেননি দেশের অনেকেই। তাঁর জাত গিয়েছে বলে, তাকে একঘরেও করা হয়েছিল তখন। ব্রিটিশ পুলিশও পিছনে লেগেছিল তার। শেষ পর্যন্ত ১৯১৯ সালে তিনি তার চিরুনি কারখানা নিজের ভাই ফনীভূষনের হাতে সঁপে দিয়ে কলকাতায় গড়পাড় রোডে চলে যান। কলকাতাতে গিয়ে তিনি চিরুনি তৈরীর মেশিন বানানোর কারখানা গড়েছিলেন। কিন্তু সেই কারখানায় উৎপাদন শুরুর আগেই তিনি ১৯৪৪ সালে মৃত্যুবরণ করেন। তার সেই কারখানা আজো আছে মানিকতলার খালপাড়ে। গত ২০ শে মার্চ ভারতের, বাংলাদেশের, ভারতীয় উপমহাদেশের চিরুনি শিল্পের জনক মন্মথনাথ ঘোষের ৭৭ তম মৃত্যু বার্ষিকী চলে গেছে। একজন প্রচারের আলোয় না থাকা শিল্পদ্যোগীর কথা আজকের প্রজন্মের কেও জানে না। অথচ এই শিল্পকে এই উপমহাদেশে ছড়িয়ে দিয়েছিলেন ঝিনাইদহের মন্মথ ঘোষ। তার কল্যানে মানুষ আজ সহজলভ্য দামে চিরুনি কিনে ব্যবহার করতে পারছেন।

শেয়ার করুন

[প্রিয় পাঠক, আপনিও মানবতা টেলিভিশনের অনলাইনে অংশ হয়ে উঠুন।আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানান ঘটনার খবর জানাতে পারেন এবং লাইফস্টাইল বিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-manobatatelevision@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।[বিদ্র: পরিচয় গোপন রাখার মত বিষয় হলে তা গোপন রাখা হবে]]
এই বিভাগের আরো

সেহরী ও ইফতারের সময়

সেহরির শেষ সময়ঃ ৪:০৩ পূর্বাহ্ণ
ইফতারের শেষ সময়ঃ ৬:৩৯ অপরাহ্ণ
  • ফজর
  • যোহর
  • আসর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ভোর ৪:০৮ পূর্বাহ্ণ
  • দুপুর ১২:০৫ অপরাহ্ণ
  • বিকাল ৪:৩৭ অপরাহ্ণ
  • সন্ধ্যা ৬:৩৯ অপরাহ্ণ
  • রাত ৭:৫৯ অপরাহ্ণ
  • ভোর ৫:২৭ পূর্বাহ্ণ

পুরানো সংবাদ পড়ুন

MonTueWedThuFriSatSun
     12
10111213141516
17181920212223
24252627282930
31      
1234567
891011121314
15161718192021
293031    
       
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031   
       

Advertaisement

Advertaisement

করোনা লাইভ আপডেট

আইপিএল ক্রিকেট লাইভ স্কোর

চুয়াডাঙ্গার আবহাওয়া সংবাদ
২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত |গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রনালয়ে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।
সাইট ডিজাইনার সালিকিন মিয়া সাগর-01867010788
আরো সংবাদ পড়ুন
জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নতুন সচিব নিয়োগ পেয়েছেন শিল্প মন্ত্রণালয়ের সচিব কে…