ঢাকাশনিবার , ৫ মার্চ ২০২২
  1. অর্থনীতি
  2. আন্তর্জাতিক
  3. কৃষি-কৃষক
  4. খেলার খবর
  5. চাকরী
  6. চিকিৎসা-করোনা
  7. জাতীয়
  8. দেশ-জুড়ে
  9. ধর্ম-কর্ম
  10. প্রযুক্তি খবর
  11. বিনোদন
  12. বিস্ময়কর
  13. রাজনীতি
  14. লাইফস্টাইল
  15. শিক্ষা

শিশু আপন কিংবা শিল্পপতি আব্দুল কাদেরর কাছে প্রতিবন্ধী আল-আমিন যেন কপিলমুনি মসজিদ নির্মানের পাঞ্জেরী

Link Copied!

কেক কেটে বন্ধু-বান্ধব নিয়ে জন্মদিন পালনের আনন্দটাই অন্যরকম। দশ বছরের আপন এর গতকাল ছিল জন্মদিন। প্রতিবারের মত এবারও তার জন্মদিন নিয়ে কতইনা স্বপ্ন তার। সকল প্রস্তুতিও ছিল তার। শিশু আপন হঠাৎ তার দীর্ঘ দিনের লালিত স্বপ্নে পরিবর্তন আনে। কেক ছাড়াই পালন হবে জন্মদিন। রেজাকপুর কাশিমনগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র আপন তার বড় ভাইকে সাথে নিয়ে বাবার কাছ থেকে নেওয়া কেক তৈরির টাকাটা দান করে মসজিদ নির্মান কাজে। ছোট্ট আপনের এমন উদ্যোগ অজান্তেই অশ্রæসিক্ত করে মসজিদ নির্মান কাজে দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিদের।
আব্দুল কাদের। উদীয়মান তরুণ শিল্পপতি। সদালাপী, মিষ্টিভাষি একজন সামাজিক ব্যক্তিত্বসম্পন্ন ব্যক্তি। কর্মদক্ষতা, অদম্য সাহস আর বুদ্ধিমত্তার গুনে আজ তিনি সমাজে সু-প্রতিষ্ঠিত। এ,বি টোব্যাকো কোম্পানি, এ,বি ডেইরী ফার্ম, হ্যাপি জর্দা ফ্যাক্টরি, আলাহর দান ফিস এন্ড মৎস্য খামার, আব্দুল কাদের রিয়েল এস্টেট লিঃ, সাইয়ান সালেহ এন্টারপ্রাইজ ট্রান্সপোর্ট এর চেয়ারম্যান আব্দুল কাদেরও এগিয়ে এসেছেন মসজিদ নির্মান কাজে। পত্র পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশ ও সোশ্যাল মিডিয়ায় দৃষ্টিনন্দন মসজিদ নির্মান কাজে অংশ এগিয়ে আসায় স্থানীয়দের চায়ের আড্ডায় মুখে মুখে। তার পাঠানো বালু ভর্তি একাধিক কার্গো নোঙর ফেলেছে মসজিদ নিকটবর্তী কপোতাক্ষ নদে। সমাজ সেবক আব্দুল কাদের জন্মসূত্রে স্থানীয় নাগরিক। উন্নয়ন কাজ, অসহায় মানুষের সহযোগিতা সহ নানা ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের পৃষ্ঠপোষকতা করেন আব্দুল কাদের। তিনি বগুড়া গোয়ালডাঙ্গা জামে মসজিদ, গাড়ীদহ জামে মসজিদ, গাড়ীদহ হেফজখানা বগুড়ার উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। আপন কিংবা আব্দুল কাদের নয় কপিলমুনি বায়তুস সালাম জামে মসজিদ নির্মান কাজে এগিয়ে এসেছেন কপিলমুনি সহচরী বিদ্যামন্দিরের ২০০৩ ব্যাচের শিক্ষার্থী, রাইচ মিল শ্রমিক বেগম, চট্টগ্রামের ইয়াসমিন নাহার, বটিয়াঘাটার ইলিয়াস, চট্টগ্রামের নাহিদ মাহমুদ, শার্শার খায়রুন্নেছা বেগম সহ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকেই। “অন্যের দানে সংসার চলে প্রতিবন্ধী আল-আমিনের তারই দানে নির্মান হচ্ছে কপিলমুনি মসজিদ।” গত কয়েকদিন স্থানীয় ও জাতীয় দৈনিকে সচিত্র এমন সংবাদ প্রকাশিত হয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় যাদুকরি ছোঁয়ায় সংবাদটি এখন ভাইরাল হয়েছে। শিশু থেকে বৃদ্ধ, গরীব থেকে ধনী সব শ্রেণীর মানুষের মনে দাগ কেটেছে আল-আমিনের এই মহত উদ্যোগ। ঐতিহ্যবাহী কপিলমুনির ঐতিহাসিক কপিলমুনি কেন্দ্রীয় বায়তুস সামাল জামে মসজিদের দৃষ্টিনন্দন মসজিদ নির্মান কাজে এগিয়ে এসেছেন অনেকে। মসজিদ কমিটির সদস্য সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী এস এম মুস্তাফিজুর রহমান পারভেজ জানান, এক সময়ের খর¯্রােতা কপোতাক্ষে কপিলমুনি বাণিজ্য নগরীতে আসা পানসী নৌকা নোঙর ফেলতো সারি সারি। নামাজ আদায়ে এখানে কোন মসজিদ না থাকায় সেই পানসী নৌকায় নামাজ পড়ত মুসল্লীরা। নৌকায় নামাজ পড়ার স্থানটিতে পুনঃনির্মান হচ্ছে দৃষ্টিনন্দন মসজিদ। দেশে বিদেশের বিভিন্ন পর্যায়ের মানুষ অংশ নিচ্ছে নির্মান কাজে। সুবিধা বি ত থেকে শুরু করে শিশু, অসহায় মহিলা কিংবা শারীরিক প্রতিবন্ধীরাও এগিয়ে এসেছেন একাজে। তাদের সহযোগিতা আমাদের শুধু কাজের গতি বৃদ্ধি করেনি শ্রদ্ধার অজান্তে গড়িয়ে পড়েছে আনন্দাশ্রæ।###

 

 

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।