ঢাকাশুক্রবার , ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২
  1. অর্থনীতি
  2. আন্তর্জাতিক
  3. কৃষি-কৃষক
  4. খেলার খবর
  5. চাকরী
  6. চিকিৎসা-করোনা
  7. জাতীয়
  8. দেশ-জুড়ে
  9. ধর্ম-কর্ম
  10. প্রযুক্তি খবর
  11. বিনোদন
  12. বিস্ময়কর
  13. রাজনীতি
  14. লাইফস্টাইল
  15. শিক্ষা

সিয়াম-পরীর ছবিতে জাফর ইকবালের গান

বিনোদন ডেস্ক
ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২২ ৩:৩৪ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

শিক্ষাবিদ, জনপ্রিয় সাহিত্যিক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল প্রথমবারের মতো গান লিখেছেন। গানটি তিনি লিখেছেন আবু রায়হান জুয়েল পরিচালিত সিয়াম ও পরীমনি অভিনীত মুক্তির অপেক্ষায় থাকা ছবি ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’-এর জন্য। চমকপ্রদ এ খবরটি পরিচালক আবু রায়হান জুয়েল চ্যানেল আই অনলাইনকে জানিয়ে বলেন, স্যার এই প্রথম গান লিখলেন।

মুহম্মদ জাফর ইকবালের লেখা উপন্যাস ‘রাতুলের রাত রাতুলের দিন’ অবলম্বনে নির্মিত হয়েছে ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’। পরিচালক বলেন, গল্পে একটি দৃশ্যে বাচ্চাদের গোসলের দৃশ্য রয়েছে। স্যারকে বলেছিলাম, স্যার এখানে বাচ্চাদের গোসলের দৃশ্যে তাদের একটা গান ডিম্যান্ড করে। উনি বলেছিলেন, যেটা ভালো হয় করো। তখন বলেছিলাম, স্যার লিখে দেন।

পরিচালক আবু রায়হান জুয়েলের ভাষ্যে ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের সঙ্গে কথোপকথন ছিল এমন, স্যার বলেছিলেন, আমি কখনও গান লিখি নাই। তবে দেখি কবিতার মতো কিছু একটা লেখার চেষ্টা করি। পছন্দ হলে নিও। নইলে অন্য কাউকে দিয়ে লিখিয়ে নিও। স্যার লিখে পাঠানোর পর সংগীত পরিচালক ইমন চৌধুরীকে দেই। উনি মিউজিক করার পর সুপার মনে হয়েছে।

”আমাদের ছবির উপদেষ্টা এবং টিম সদস্যরাও গানটি শুনে প্রশংসা করেন। তবে স্যার সন্দিহান ছিলেন গানটি আদৌ ভালো হয়েছে কিনা! শুটিং করে গানটি ভিডিও আকারে স্যারকে মেইলে পাঠাই। তিন মিনিট পরেই স্যার কল ব্যাক করে খুশী হয়ে মজা করে আমাকে বলেন, তোমাকে মাইর দেয়া উচিত। গান তো অনেক সুন্দর হয়েছে। তোমার ম্যাডামকে নিয়ে দেখলাম।”

গানটির নাম ‘আয় আয় সব তাড়াতাড়ি, সাবান পানি ঢেলে তাড়াতাড়ি’। সংগীত পরিচালনায় পাশাপাশি এ গানের সুর করেছেন ইমন চৌধুরী। এই গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন, ১০জন নতুন শিশু শিল্পী। পরিচালক বলেন, গানের ভিডিওতে ১৪ জন শিশু আছে।

এদিকে, লেখক ও পুলিশ সুপার দেওয়ান লালন আহমেদের লেখা ‘দ্যাখো, সারেং ছাড়া জাহাজ চলে কার ইশারায়, কিসের বলে…’ এমন লেখা আরেকটি গানে কণ্ঠ দিলেন বাউলশিল্পী শফি মণ্ডল। সুর করেছেন ইমন চৌধুরী। গত সোমবার রাতে রাজধানীর একটি স্টুডিওতে গানটি রেকর্ড করা হয়েছে।

২০১৯-২০ অর্থ বছরে সরকারি অনুদান পায় ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’। ছবিটির সঙ্গে সহপ্রযোজনা করছেন বঙ্গ। ২০২০ সালের মার্চেই এ ছবির বেশিরভাগ কাজ শেষ হয়। আরও থাকছেন শহীদুল আলম সাচ্চু, আজাদ আবুল কালাম, মুনিরা মিঠু, কচি খন্দকার, আশিষ খন্দকারসহ বেশ কয়েকজন শিশুশিল্পী।

পরিচালক আবু রায়হান জুয়েল বলেন, পোস্ট প্রডাকশনের একেবারে শেষের দিকের কাজ চলছে। মার্চেই ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ সেন্সরে জমা দেব।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।