1. manobatatelevision@gmail.com : admin :
  2. chuadangatimes24@gmail.com : Manobata Television : Manobata Television
স্বাধীনতা বিরোধীদের বিষ দাত উপড়ে ফেলা হবে-মুজিবনগর দিবসে হানিফ » Manobata Television: Bangla online Tv
ঢাকা আজ-বৃহস্পতিবার,৬ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ,২৩শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,ভোর ৫:৫৮,গ্রীষ্মকাল
সর্বশেষ প্রকাশিত
যশোরের শার্শা থেকে ০৪ কেজি গাঁজা সহ মহিলা আটক নোয়াখালী পৌর মেয়র সোহেলের নিজ অর্থায়নে কোভিড আক্রান্ত রোগীদের জন্য অক্সিজেন ব্যাংক উদ্বোধন এবার দৈত্য হয়ে আসছে হিরো আলম দারাজের সাথে সোয়াপের চুক্তি স্বাক্ষর মেটলাইফ প্রিমিয়াম পেমেন্টের মাধ্যম হিসাবে যুক্ত হলো নগদ পাইকগাছায় মিষ্টি আলুর বাম্পার ফলনে কৃষকদের মুখে হাসি জীবননগরের ভ্রাম্যমান অভিযানে ৩টি প্রতিষ্ঠানকে ১০,০০০টাকা জরিমানা কাল থেকে গণপরিবহন চলবে হিলিতে বোর মৌসুমের ধান সংগ্রহে লটারির মাধ্যমে কৃষক নির্বাচন ঝিনাইদহে আম চাষে লোকসানের শঙ্কা হিলিতে শিশু ধর্ষনের অভিযোগে যুবক আটক দামুড়হুদায় বরাদ্দকৃত অর্থের চেক বিতরণ ও উপজেলা পর্যায়ে প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত গরীব ও দুঃস্ত মহিলাদের মাঝে সেলাই মেশিন অনুষ্ঠানে এমপি টগর জেনে নিন হাঁপানির উপসর্গ ও সুস্থ থাকার উপায় চুয়াডাঙ্গায় “আল্লার দান-ই বাইক সেন্টার” উদ্বোধন সব হারালাম- হাফিজুর রহমান চরিত্র প্রধান ছবিতেই কাজ করতে চান আচল লকডাউন বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি হেফাজতের আরও দুই নেতার বিরুদ্ধে মামলা দেশে ফিরলেন লিবিয়ায় আটকে পড়া ১৬০ বাংলাদেশি জি-গ্যাস ও এডিএ’র যৌথ উদ্যোগে মাইক্রো ওয়েব সিরিজ মিডলক্লাস দিনরাত্রি

স্বাধীনতা বিরোধীদের বিষ দাত উপড়ে ফেলা হবে-মুজিবনগর দিবসে হানিফ

খালেকুজ্জামানঃ
  • প্রকাশিত রবিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২১, ০৮:৪৪: পূর্বাহ্ণ
  • ২০ বার দেখা
Manobata Tv 1618669023726 IMG20210417105637

১৭৫৭ সালে পলাশির আম্রকাননে স্বাধীনতার যে সূর্য অস্তমিত হয়ে বাংঙ্গালী জাতি দুইশত বছরের পরাধীনতার শৃংখলে আবদ্ধ হয়ছিল। ১৯৭১ সালে ১৭ ই এপ্রিল বৈদ্যনাথতলা (মুজিবনগর)আম্রকাননে সেই সূর্য আবার উদিত হয়েছিল কিন্তু তারপরেও আস্ফালন বন্ধ হয়নি স্বাধীনতা বিরোধী মীর জাফরদের।তারই প্রেক্ষাপটে শনিবার (১৭ এপ্রিল) ১১টার দিকে মুজিবনগরে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবসে এক প্রেস বিফ্রিংএ বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহাবুবুল আলম হানিফ এমপি বলেন,
স্বাধীনতার ৫০ বছরের মাথায় দাড়িয়েও স্বাধীনতা বিরোধি শক্তির আস্ফালন দেখছি। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন নামে ধর্মকে ব্যবহার করে দেশকে অস্থিতিশিল করার চেষ্টা করছে তারা। যারা স্বাধীনতা যুদ্ধে বিরোধিতা করেছিল, যারা বাংলাদেশের সংবিধান মানতে চাইনা, যারা এখনো জাতীয় পতাকাকে সম্মান করতে চাইনা তারা স্বাধীন বাংলাদেশের নাগরিক হিসেবে থাকার অধিকার রাখে না। হেফাজত বলেন আর জামায়াত বলেন এরা সবই স্বাধীনতা বিরোধী। স্বাধীনতা বিরোধীদের বীজ অনেক গভীরে চলে গেছে। এজন্য স্বাধীনতার ৫০ বছরে এসেও তাদের আস্ফালন দেখতে হচ্ছে। স্বাধিনতার সুবর্নজয়ন্তিতে এসে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যখন দেশ উন্নয়নের পথে অগ্রসর হচ্ছে। ঠিক সেই সময় উন্নয়নকে বাধাগ্রস্থ করার জন্য একাত্তরের পরাশক্তিরা বিভিন্ন ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে। আইনি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে তাদের বিষ দাত উপড়ে ফেলে দিয়ে ।
শেখ হানিার নেতৃত্বে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবো।
অনেক জীবন এবং এক সাগর রক্তের বিনিময়ে বাংলাদেশ পেয়েছিল তার আসল বাস্তবতা। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞগণ বাঙালী জাতির আন্দোলনের কারণ সম্পর্কে সেই ১৮৮৫ সাল থেকে শুরু করে ১৯৭০ সালের সাধারণ নির্বাচন পর্যন্ত অনেক ঘটনায় উল্লেখ করেছেন। বাংলাদেশীদের স্বপ্ন চুড়ান্তভাবে বাস্তবায়িত হয়েছিল ১৯৭১ সালে ১৭ এপ্রিল মুজিবনগর আম বাগানে । যেখানে বাংলাদেশের প্রথম সরকার শপথ নিয়েছিল। সেখানে সেই মহতী অনুষ্ঠান প্রত্যক্ষ করেছিলেন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক, সাংবাদিক, পর্যবেক্ষক এবং বিশিষ্ট রাজনীতিবিদগণ। স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র নামে একটি রেডিও সেন্টার স্থাপন করে প্রথম সরকারের শপথ অনুষ্ঠান সারাদেশে সমপ্রচার করা হয়েছিল এবং মুজিবনগর সেদিন পেয়েছিল ঐতিহাসিক মর্যাদা।১০ এপ্রিল ১৯৭১ এক ঘোষনার মাধ্যমে গণ-প্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার গঠিত হয়েছিল যা মুজিবনগর থেকে ইস্যু করা হয়েছিল । এখানে উল্লেখ্য এই ঘোষনা বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পূর্বের ঘোষনাকে দৃড়ীকরন করে। বঙ্গবন্ধুর অনুপস্থিতিতে বাংলাদেশের প্রথম প্রবাসী সরকারের রাষ্ট্রপতি হয়েছিলেন সৈয়দ নজরুল ইসলাম এবং প্রধানমন্ত্রী হয়েছিলেন জনাব তাজউদ্দীন আহমেদ। সে সময় পাকিস্তানী সামরিক বাহিনী মেহেরপুরকে করতলে নিলেও পৌঁছুতে পারেনি বৈদ্যনাথতলায়। তদানীন্তন মেহেরপুর মহাকুমার বাগোয়ান ইউনিয়নের নিভৃত পল্লী বৈদ্যনাথতলা। স্বাধীনতা যুদ্ধকালীন সমস্ত সময়টুকু এ জায়গাটি ছিল নির্বিঘ্ন। ব্রিটিশ শাসনামলে পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার অন্তর্গত মেহেরপুর ছিল মহাকুমা শহর । সে সুবাদে কলকাতার সাথে এই বৈদ্যনাথতলার সরাসরি সড়ক যোগাযোগের ব্যাবস্থা ছিল। সরকার গঠনের পর মুজিবনগরকে অন্তর্বর্তীকলিন রাজধানী ঘোষনা করা হয়েছিল। পাশাপাশি স্বাধীতার ফরমান জারি করে মুক্তিযুদ্ধ শুরু করা হয়েছিল। এই সময় ও শপথ গ্রহণের স্থানকে চিরস্মরণীয় করে রাখতে বৈদ্যনাথতলা নাম পরিবর্তন করে নাম রাখা হয় মুজিবনগর। তখন থেকে ১৭ এপ্রিলকে বলা হয় মুজিবনগর দিবস। এবং সেই থেকেই এই দিনটি মুজিবনগর দিবস হিসাবে পালিত হয়ে আসছে। মুজিবনগর সরকার দেশকে ৬টি জোনাল কাউন্সিলে ভাগ করেছিল যা জনগনের সমস্যার দেখভাল করত। সে সময় মুজিবনগর হয়ে উঠেছিল বাংলাদেশের প্রেরণার উৎস এবং জাতির ভাবমূর্তি অক্ষ্ন্নু রাখতে যথাসম্ভব যাকিছু করার ছিল তাই করেছিল। মুজিবনগরে বাংলাদেশের প্রথম সরকার গঠন আমাদের মুক্তি সংগ্রামে এবং ইতিহাসে এক মাইল ফলক। যা বিশ্বকে সাহায্য করেছিল আমাদের মুক্তিয্দ্ধুকে সমর্থন করতে। পরবর্তীতে চুড়ান্ত ভাবে স্বীকৃত পেয়েছিল একটি নতুন স্বাধীন রাষ্ট্র হিসাবে। স্বাধীনতার পর থেকে দিবসটি জাকজমকের সাথে পালন করে আসছে আওয়ামীলীগ কিন্তু গত বছর থেকে করোনার প্রাদুর্ভাবের কারনে সীমিত আয়োজনে মুজিবনগর দিবস পালন করা হয়েছে। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের পক্ষে সীমিত আয়োজনে অংশ নেন হানিফ। এসময় তিনি আরও বলেন, ১৭ এপ্রিল ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস বাঙালি জাতির কাছে একটি স্বরনীয় দিন। ১৯৭১ সালের ১০ এপ্রিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে রাষ্ট্রপতি করে সরকার গঠনের পর ১৭ এপ্রিল আনুষ্ঠানিকভাবে এই মুজিবনগরে সেই সরকার শপথ গ্রহন করেন। সেই সরকারের বলিষ্ঠ নেতৃত্বে মাত্র ৯ মাসে আমরা স্বাধীন বাংলাদেশ লাভ করি।
সেই দিনটিকে স্বরণ করতে উপস্থিত ছিলেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ও মেহেরপুর ১ আসনের সংসদ সদস্য ফরহাদ হোসেন, জাতীয় সংসদ এর হুইপ জয়পুরহাট ১ আসনে এমপি আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, মেহেরপুর ২ আসনের সাংসদ সাহিদুজ্জামান খোকন, মেহেরপুর ২ এর সাবেক এমপি মকবুল হোসেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ খালেক, জেলা প্রশাসক ড. মোহাম্মদ মুনসুর আলম খান, পুলিশ সুপার এস এম মুরাদ আলি, মেহেরপুর পৌর মেয়র মাহফুজুর রহমান রিটন প্রমুখ।এর আগে সকাল ৬টায় জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে মুজিবনগর দিবসের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। পরে সকাল সাড়ে দশটার দিকে মাহাবুবুল আলম হানিফ এর নেতৃত্বে স্মৃতিসৌধে পুস্পস্তবক অর্পণ জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়।এ সময় বিউগল এর সুরে বাংলাদেশর পুলিশ ও আনসার ব্যাটেলিয়ন এর একটি চৌকশ দল অতিথিদের গার্ড অফ অনার প্রদান করে।

শেয়ার করুন

[প্রিয় পাঠক, আপনিও মানবতা টেলিভিশনের অনলাইনে অংশ হয়ে উঠুন।আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানান ঘটনার খবর জানাতে পারেন এবং লাইফস্টাইল বিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন-manobatatelevision@gmail.com-এ ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।[বিদ্র: পরিচয় গোপন রাখার মত বিষয় হলে তা গোপন রাখা হবে]]
এই বিভাগের আরো

সেহরী ও ইফতারের সময়

সেহরির শেষ সময়ঃ ৪:০৩ পূর্বাহ্ণ
ইফতারের শেষ সময়ঃ ৬:৩৯ অপরাহ্ণ
  • ফজর
  • যোহর
  • আসর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ভোর ৪:০৮ পূর্বাহ্ণ
  • দুপুর ১২:০৫ অপরাহ্ণ
  • বিকাল ৪:৩৭ অপরাহ্ণ
  • সন্ধ্যা ৬:৩৯ অপরাহ্ণ
  • রাত ৭:৫৯ অপরাহ্ণ
  • ভোর ৫:২৭ পূর্বাহ্ণ

পুরানো সংবাদ পড়ুন

MonTueWedThuFriSatSun
     12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
31      
1234567
891011121314
15161718192021
293031    
       
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031   
       

Advertaisement

Advertaisement

করোনা লাইভ আপডেট

আইপিএল ক্রিকেট লাইভ স্কোর

চুয়াডাঙ্গার আবহাওয়া সংবাদ
২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত |গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রনালয়ে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।
সাইট ডিজাইনার সালিকিন মিয়া সাগর-01867010788