ঢাকাবুধবার , ১৫ ডিসেম্বর ২০২১
  1. অর্থনীতি
  2. আন্তর্জাতিক
  3. কৃষি-কৃষক
  4. খেলার খবর
  5. চাকরী
  6. চিকিৎসা-করোনা
  7. জাতীয়
  8. দেশ-জুড়ে
  9. ধর্ম-কর্ম
  10. প্রযুক্তি খবর
  11. বিনোদন
  12. বিস্ময়কর
  13. রাজনীতি
  14. লাইফস্টাইল
  15. শিক্ষা

বীর শহীদদের সম্মান জানাতে প্রস্তুত সাভারের জাতীয় স্মৃতিশক্তি

সাভার (ঢাকা ) প্রতিনিধি
ডিসেম্বর ১৫, ২০২১ ১:২৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

সাভারের আশুলিয়ায় জাতীয় স্মৃতিসৌধ প্রস্তুত লাল সবুজের রংতুলিতে সেজেছে রঙিন রঙিন বর্ণে।
বিজয়ের ৫০ উদযাপনে প্রস্তুত জাতীয় স্মৃতিসৌধ ৪৯ বছর আগে নয় মাস রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের পর বিজয় ছিনিয়ে আনে বাংলার অকুতোভয় বীর সেনারা। ত্রিশ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে পাওয়া লাল-সবুজের বিজয় আজ ৫০ বছরে। বিজয়ের সুবর্ণ জয়ন্তীতে তাইতো সাভারের  জাতীয় স্মৃতিসৌধ সেজেছে লাল-সবুজের সুবাসে ।
১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসের একদিন আগেই বিশেষ দিনটিতে বন্ধুপ্রতীম ভারতের রাষ্ট্রপতি এবার শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন বীর শহীদদের। দিবসটি উদযাপনে ইতোমধ্যেই গণপূর্ত বিভাগ সবধরণের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকেও জোরদার করা হয়েছে নিচ্ছিন্দ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা। সশস্ত্র তিন বাহিনীর সদস্যরাও ঝালিয়ে নিচ্ছেন সবশেষ প্রস্তুতি।
বৃহস্পতিবার ১৬ ডিসেম্বর প্রথম প্রহরেই বিজয়ের প্রথম প্রহরে জাতির বীর সন্তানদের শ্রদ্ধা জানাবেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিন। আর বিজয়ের সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে এবার ১৫ ডিসেম্বর স্মৃতিসৌধে ভারতের রাষ্ট্রপতি শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন বলে জানিয়েছে গণপূর্ত বিভাগ।
সাভার গণপূর্ত বিভাগ জানায়, বিজয় দিবসের সুবর্ণ জয়ন্তীতে প্রায় দুই মাস আগে থেকেই জাতীয় স্মৃতিসৌধ প্রস্তুত করতে নিরলস ভাবে কাজ করেছেন তারা। পরিচ্ছন্নতাকর্মী, মালি, ইলেকট্রিশিয়ানসহ গণপূর্ত বিভাগের সকলে একযোগে দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছেন। একই সাথে নবম পদাতিক ডিভিশনের কমান্ডিংয়ে তিন বাহিনীর সদস্যরা শেষ মুহুর্তে কুচকাওয়াজের প্রস্তুতি চালাচ্ছেন জোরেসোরে। চলছে মোটরসাইকেল মহড়াও। মাত্র ৪৮ ঘন্টা পরেই বিউগলের সুরে জাতির বীর সন্তানদের শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করবে জাতি। এ জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধ।
জাতীয় স্মৃতিসৌধের কর্মচারীরা জানান, স্মৃতিসৌধের প্রধান ফটক থেকে সৌধ মিনার পর্যন্ত পুরো এলাকা ধুয়েমুছে চকচকে করা হয়েছে। অনেক আগেই সৌধ চূড়ার পরিচ্ছন্নতার কাজও শেষ। পায়ে হাটার পথসহ লাল ইট গুলোতে সাদা রং দিয়ে সুন্দর করা হয়েছে। সৌধ এলাকাকে আকর্ষণীয় করতে বিভিন্ন স্থানে লাল-সবুজ ফুল গাছের চারা রোপন করেছেন তারা। একই সাথে বসিয়েছেন ফুল গাছের টব। লেক গুলোর সংস্কার কাজও শেষ। রাতের বেলা  স্মৃতিসৌধ এলাকাকে দৃষ্টিনন্দন করতে লাল-সবুজ বাতি লাগানো হয়েছে। একই সাথে গুরুত্বপূর্ণ স্থানে সিসি ক্যামেরা স্থাপনের কাজ শেষ হয়েছে কয়েক দিন আগেই।
গণপূর্ত বিভাগের সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মিজানুর রহমান  বলেন, বিজয়ের সুবর্ণ জয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষে প্রায় বিগত দুই মাস ধরে সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতার কাজ শুরু হয়েছে। ফুল দিয়ে সাজানো, লেক সংস্কার, সিসি ক্যামেরা স্থাপনসহ সকল কাজ পুরোপুরি শেষ। মাননীয় রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য জাতীয় স্মৃতিসৌধ প্রস্তুত আছে। তবে বিজয়ের সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে ১৫ ডিসেম্বর ভারতের মহামান্য রাষ্ট্রপতি বাংলাদেশে আসবেন। আমরা আশা করছি, ওই দিনই দুপুর ১-১.৩০ মধ্যেই স্মৃতিসৌধে শহীদদের সম্মানে উনি পুষ্পস্তবক অর্পণ করবেন। যেহেতু ১৬ ডিসেম্বর প্রস্তুতির সাথে এ জন্য দুই দিন আগেই আমরা সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। আর এ কারণে গত ১ ডিসেম্বর থেকেই পুরো সৌধ এলাকায় সিকিউরিটি ডেপ্লয় হয়েছে। বিভিন্ন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা বিজয় উদযাপন নির্বিঘ্ন করতে কাজ করে যাচ্ছেন।
প্রসঙ্গত, আজ থেকে ৪৯ বছর পূর্বে ১৯৭২ সালের ১৬ ডিসেম্বর সাভারের পাথালিয়া ইউনিয়নে প্রথম বিজয় দিবসে জাতীয় স্মৃতিসৌধের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। পাথালিয়া, টাটীবাড়ী, কুরগাঁওসহ তিনটি মৌজার ৮৪ একর জায়গা নিয়ে শুরু হয় স্মৃতিসৌধের নির্মাণ কাজ।

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।