আজ-সোমবার | ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ | শরৎকাল | ১৩ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি | রাত ৮:৪৬

  • হোম
  • দেশজুড়ে
Headline
এসএমই ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ৪% সুদে প্রণোদনা ঋণ দেবে লংকাবাংলা ফাইন্যান্সশার্শায় অর্থাভাবে চিকিৎসা করাতে পারছেন না মুক্তিযোদ্ধা রুহুল আমীনদেশে ফিরল বিভিন্ন মেয়াদে জেল খেটে পাচার হওয়া ৩৬ জন বাংলাদেশীমধুখালীতে ৫টি শিশু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধহিলি সীমান্তে ভারতে অবৈধ অনুপ্রবেশের অভিযোগে ৪ জন আটকফরিদপুরে মুজিব বর্ষ পৌর গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট ২০২১,১০ নং ওয়ার্ডের জয়লাভ।ক্রেতাদের দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা দিতে পুনরায় দারাজের ডি-মার্ট সেবা চালুকৃষি সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের পরামর্শ গ্রহণ করে আউশ জমিতে বালাইনাশক প্রয়োগ’র পরামর্শ: শায়লা শারমিনক্রেতাদের স্বাচ্ছন্দ্যে গ্যালাক্সি জেড ফোল্ড৩ ফাইভজি ও জেড ফ্লিপ৩ ফাইভজি’র হ্যান্ডস-অন এক্সপেরিয়েন্স সুবিধা নিয়ে এলো স্যামসাংমুজিবনগর পুলিশের ঝটিকা অভিযান ডজন খানেক ওয়ারেন্টভুক্ত আসামী গ্রেপ্তারসোনাইমুড়ি অম্বরনগর ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বেবহিরাগত সন্ত্রাসী দিয়ে এলাকায় তান্ডবঘোড়াঘাটে ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৬ জন জুয়ারু আটককরোনা মহামারি দুর্যোগ মোকাবেলা এক যুদ্ধার নাম আহসান হাবিবস্ত্রীকে ছুরিকাঘাতের পর রক্তমাখা অবস্থায় থানায় গেলেন স্বামীবাংলাদেশের শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠানে ভূষিত কুড়ুুুলগাছি আদর্শ কৃষক সমবায় সমিতি
হোম দেশজুড়ে রংপুর কালের বিবর্তনে হারিয়ে যাচ্ছে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী হাওয়াই মিঠা

কালের বিবর্তনে হারিয়ে যাচ্ছে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী হাওয়াই মিঠা

প্রকাশ: -

গোলাম রব্বানী হিলি, দিনাজপুর প্রতিনিধি

গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী মিঠাইয়ের নাম হচ্ছে হাওয়াই মিঠা। এখনো এটি গ্রামের মানুষের কাছে বিশেষ করে শিশুদের নিকট অনেক জনপ্রিয় খাবার। এক সময় ‘হাওয়াই মিঠাই’ গ্রামাঞ্চলে বেশি দেখতে পাওয়া যেতো। কিন্তু সময়ের সাথে কালের বিবর্তনে আর আধুনিকতার ছোঁয়ায় এটি এখন আর গ্রাম অঞ্চলে খুব বেশি দেখতে পাওয়া যায় না। হারিয়ে যেতে বসেছে ঐতিহ্যবাহী হাওয়াই মিঠাই। তবে তা এখনো একেবারে বিলীনও হয়ে যায়নি।
খাওয়ার জন্য প্যাকেট খোলা বা হাতে নেওয়ার সাথেই বাতাসের সঙ্গে এই মিঠাই নিমিষে বিলীন হয়ে যায় বলেই এর নাম ‘হাওয়াই মিঠাই’। এটি হাতে নিয়ে সঙ্গে সঙ্গে মুখে দিয়ে খেতে হয় এটি। হাওয়াই মিঠা খেয়ে পেট ভরে না। তবে খেতে মিষ্টি লাগে। মুখের স্বাদ মেটায় শুধু। দেখতে অনেক বড়সড় মনে হলেও নিমিষেই এটি মুখের ভেতর এসে গলে যায়। বিশেষ করে গ্রামের শিশুরা এই মিঠায়ে বেশি আনন্দ পায়। বড়রাও এর স্বাদ থেকে পিছিয়ে থাকেন না। দাম কম হওয়ায় সবার আগ্রহ থাকে এই মিঠাইয়ের প্রতি।

ঐতিহ্য গতভাবে বাংলার বিভিন্ন মেলা এবং গ্রামের পথে ঘাটে পাড়া মহল্লায় বিশেষ করে ধান কাটার মৌসুমে দেখা পাওয়া যায় হাওয়াই মিঠাই বাক্স নিয়ে ফেরিওয়ালাদের। পিতল বা কাঁসার ঘন্টায় টিং টিং শব্দ তুলে শিশু-কিশোরদের দৃষ্টি কাড়ে তারা। হুমড়ি খেয়ে পড়ে, তাঁদের ঘিরে ধরে শিশু কিশোরের দল। শুধুমাত্র চিনিকে তাপ দিয়ে গলিয়ে তা একটি হাতে ঘুরানো ‘যাতা’য় পিষে অল্প সময়ে তৈরি করা হয় এই ‘হাওয়াই মিঠাই।

দিনাজপুরের হাকিমপুর উপজেলার প্রত্যন্ত কোকতাড়া গ্রামের কোরবান আলী জানান, হাওয়াই মিঠা দেখলে খাওয়ার ইচ্ছা করে। মনে হয় কখন খাবো এই মিঠাই। এটি একটি মুখরোচক খাবার। এখনো গ্রামে হাওয়াই মিঠাই বিক্রেতা আসলে আমি কিনে নিয়ে শিশুদের সাথে তাল মিলিয়ে মজা করে খাই।

পাঁচ টাকা দিয়ে ‘হাওয়াই মিঠাই’ কিনে খাওয়ার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আগে ছোট বেলায় যখন বাবা-চাচাদের সঙ্গে গ্রামের বাজারে বা মেলায় যেতাম। তখন প্রথম বায়নাটি ছিলো ‘হাওয়াই মিঠাই’ খাওয়ার। আর বেশির ভাগ সময় হাতের কাছে পেয়েও যেতাম এটি।

উপজেলার বিশাপাড়া গ্রামের আব্দুল কুদ্দুস জানান, হাওয়াই মিঠাই খেতে অনেক মজা। এখন আর তেমন দেখা যায় না। তবে এখনো গ্রামে কেউ ‘হাওয়াই মিঠাই’ বিক্রি করতে আসলে আমি তার কাছে ছুটে যাই। হাওয়াই মিঠাই কিনে খাই একটা- দুইটায় মন ভরে না। আমি চার-পাঁচটা খাইতাম একবারে মুখে দিতাম আর নিমিষেই মুখের ভিতরে গলে যেত। আর এই কারণে এটি খেতে মজায় আলাদা। তিনি আরো বলেন, খাবারটি খুবই লোভনীয়। এটি দেখলেই শৈশবের কথা মনে পড়ে যায়। বিশেষ করে বাচ্চারা এটি বেশি পছন্দ করে।

গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা সদরের মশিউর রহমান (৪০) বর্তমানে সে হাকিমপুর পৌর শহরের মুহাড়াপাড়া গ্রামে বসবাস করে। গতকাল সে প্রত্যন্ত গ্রাম কোকতাড়াতে আসে স্বাদের হওয়াই মিঠাই বিক্রি করতে। চলার পথে দেখা তার সাথে এবং তার সাথে কথা বললে তিনি জানান, প্রায় ১২ বছর ( একযুগ) ধরে ‘হাওয়াই মিঠাই’ বিক্রি করতেছি। আগের মতো এখন হাওয়াই মিঠা আর চলে না। কি আর করা ব্যবসাটা ছাড়তেও পারি না। তাই সারাদিন যা আয় হয় তা দিয়ে কোন রকমে সংসারটা চলে। আগে সারা বছরই এ ব্যবসা করে সংসার চালাতাম। কিন্তু, এখন বছরে চার থেকে পাঁচ মাস এ ব্যবসা একটু বেশি চলে। বিশেষ করে ইরি ধান কাটা মাড়াই ও আমন ধান কাটা মাড়াই এর সময় এটি বেশি চলে। আর মাঝে-মধ্যে গ্রাম গঞ্জে মেলা বসলে হাওয়াই মিঠাই বিক্রি করেন বলেও জানান তিনি।

তিনি আরো বলেন, “হাওয়াই মিঠাই একটি বিশুদ্ধ সামগ্রী, ভেজাল মুক্ত হওয়ায় এটি খেতে শিশুদের কোনো ঝুঁকি নেই। শিশুরা আনন্দ সহকারে এটি খেতে পছন্দ করে। আর আমিও আনন্দের সঙ্গে তা বিক্রি করি। শুধু শিশুরাই নয় বড়রাও আমার কাছ থেকে হাওয়াই মিঠাই কিনে খায়। আমি গ্রামে গ্রামে সারাদিন ঘুরে এক’শ থেকে দেড়শোর মতো হাওয়াই মিঠাই এর প্যাকেট (প্রতি প্যাকেট ৫টাকা) বিক্রি করতে পারি। এতে আমার আয় হয় ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা। এটাতে আমার সংসার চালায় কোন অসুবিধা হয় না। ধান কাটা মাড়াই মৌসুমে ব্যবসাটা ভালো হয় বলে জানান তিনি।

এই বিভাগের আরো

এই সপ্তাহের জনপ্রিয়

দামুড়হুদায় প্রবাসী শশুরের টাকা আত্মসাত, স্ত্রীকে সুকৌশলে ডিভোর্স দেওয়ার অভিযোগ : আদালতে মামলা, তদন্ত সিআইডির হাতে

চুয়াডাঙ্গার দামুড় হুদাই রকিবুল ইসলাম (২৭) ও তার মা রুপালী খাতুন (৪৫) পুর্ব পরিকল্পনামূলে বাবুল আক্তার নামে সৌদি এক প্রবাসীর কাছ থেকে বিভিন্ন ভাবে...

কুড়ুলগাছিতে জাল টাকা তৈরি চক্রের ৩ সদস্য আটক

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা থানার কুড়ুলগাছি গ্রামে অভিযানে জাল টাকা তৈরি চক্রের সদস্য, চাঁদাবাজ চক্রের হোতা, মাদক ব্যবসায়ী, পুলিশ পরিচয়ে ছিনতাইসহ এক ডজন...

কার্পাসডাঙ্গার ফেরদৌস চোরকে গণ ধোলাই শেষে পুলিশে সোপর্দ

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ দামুড়হুদা উপজেলার কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নের বাঘাডাঙ্গার নতুন পাড়ার পেশাদার চোর ফেরদৌসকে নাটুদাহের আটকবর মোড়ে বাইসাইকেল চুরি করার সময় হাতে আটক করার পর গণধোলাই...

দামুড়হুদা ইউএনওর বদলির আদেশঃ কাঁদছেন উপজেলার হাজার হাজার মানুষ

হাবিবুর রহমান হাবিব/ চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধিঃ চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলা থেকে একটি বটবৃক্ষের প্রস্থান হতে চলেছে। বটবৃক্ষটি আসলে একটি রক্ত মাংশে গড়া মানুষ! আর এই...

দামুড়হুদায় সুবুলপুরের মাদক ব্যবসাী জাহাঙ্গীর আটক

মো: মাহবুবুর রহমান মনিঃ চুয়াডাঙ্গা দামুড়হুদা মডেল থানার পুলিশ মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে ১২ বোতল ভারতীয় ELCOREX COUGHSYRUP ও ১কেজি ৫০০ গ্রাম গাজাসহ এক...
Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com